এক দফা দাবি বাস্তবায়নে মহাসড়ক অবরোধ শাবি শিক্ষার্থীদের

post-title

ছবি সংগৃহীত

২০১৮ সালের পরিপত্র বহাল ও মেধার ভিত্তিতে নিয়োগের দাবিতে ১ দফা দাবি নিয়ে আবারো তৃতীয় দিনের মত অবস্থান কর্মসূচি ও সড়ক অবরোধ করে রেখেছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কোটাবিরোধী আন্দোলনরত  শিক্ষার্থীরা।

সোমবার (৮ জুলাই) বিকাল সাড়ে ৩ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের গোল চত্বর থেকে মিছিল বের করে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে বিকাল ৪ টায় বৃষ্টি উপেক্ষা করে  মুল ফটকের সামনে অবস্থান নিয়ে সিলেট-সুনামগঞ্জের রাস্তা অবরোধ করে রাখে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

এসময় 'একাত্তরের চেতনা, বৃথা যেতে দেব না', বায়ান্নর বাংলায়, বৈষম্যের ঠাই নাই, একাত্তরের বাংলায়, বৈষম্যের ঠাই নাই, সংবিধানের মূল কথা, সুযোগের সমতা', ইত্যাদি ¯ে¬াগানে উত্তাল করে তোলে সিলেট-সুনামগঞ্জ মহাসড়ক।

সরকারি চাকরিতে প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণিতে মুক্তিযোদ্ধাসহ অন্য কোটা বাতিল করে জারি করা পরিপত্র গত ৫ জুন অবৈধ ঘোষণা করেন হাইকোর্ট ফলে ২০১৮ সালের পরিপত্র বহাল রাখার দাবিতে দীর্ঘদিন অবস্থান কর্মসূচী করে আসলেও এখনো কোনো সিদ্ধান্ত না আসায় কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে  লাগাতার আন্দোলনের ডাক দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা। এরই অংশ হিসাবে ১ দফা দাবি নিয়ে 'বাংলা ব¬কেড' বাস্তবায়নে সড়ক অবরোধ করে  রাখেন শাবিপ্রবি শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীদের এক দফা দাবি হলো- সকল গ্রেডে সব ধরনের অযৌক্তিক ও বৈষম্যমূলক কোটা বাতিল করে সংবিধানে উলি¬খিত অনগ্রসর গোষ্ঠীর জন্য কোটাকে ন্যূনতম পর্যায়ে এনে সংসদে আইন পাস করে কোটা পদ্ধতিকে সংশোধন করতে হবে। এসময় দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত রাজপথে কঠোর আন্দোলন  চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণাও দেন তারা।

অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী মো. কামরুজ্জামান বলেন, ১৯৭১ সালে এদেশের মানুষ  মুক্তিযোদ্ধ করেছিল বৈষম্য ও দুর্নীতিমুক্ত একটি  দেশ গড়ার জন্য কিন্তু স্বাধীনতার  অর্ধশত বছরে এসেও মেধাবীরা বৈষম্যের শিকার হচ্ছে। এটা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। তাই অতিদ্রুত কোটা সংস্কার করে মেধাবীদের ন্যায্য অধিকার ফিরিয়ে দিন।

এসএ/সিলেট