ফ্রান্সে প্লেন দুর্ঘটনা ও ঝড়ে নিহত ৬, নিখোঁজ ৭

post-title

ফ্রান্সে বিমান বিধ্বস্ত হয়ে ও ঝড়ের আঘাতে অন্তত ৬ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। রোববার রাজাধানী প্যারিসে ও দক্ষিণ-পূর্ব ফ্রান্সের গার্ডে পৃথক দুর্ঘটনায় এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের বরাতে আনাদোলু জানিয়েছে, বিমানটি রাজধানীর কাছাকাছি একটি বিমানবন্দর থেকে উড্ডয়ন করে। পরে একটি উচ্চ-ভোল্টেজ পাওয়ার লাইনে স্পর্শ করলে প্লেনটি ইলে-ডি-ফ্রান্স অঞ্চলের একটি হাইওয়েতে পড়ে যায়।

এতে ছোট্ট বিমানটির তিন আরোহী নিহত হন। তবে মহাসড়কে চলাচলকারী যানবাহনের কোনো ক্ষতি হয়নি।

যদিও দুর্ঘটনার কারণে মহাসড়কের উভয় লেনে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ঘটনার তদন্ত করছে কর্তৃপক্ষ।

এদিকে ইউরোনিউজের বরাত দিয়ে মেহের নিউজ এজেন্সি জানিয়েছে, দক্ষিণ-পূর্ব ফ্রান্সের গার্ডে ঝড় মনিকার আঘাতে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে এবং ৭ জন নিখোঁজ রয়েছেন।

ইউরোনিউজের তথ্য মতে, মনিকা নামক এই ঝড়টি দক্ষিণ-পূর্ব ফ্রান্সজুড়ে বিপর্যয় সৃষ্টি করেছে। এর ফলে সেখানে তিনজনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে এবং আরও কয়েকজন নিখোঁজ রয়েছে।

স্থানীয় কর্তৃপক্ষ জানায়, গার্ড অঞ্চলে একটি সেতু পার হওয়ার চেষ্টাকালে তিনজন নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে দুজনকে উত্তর গার্ডের গৌদারগেস গ্রামে একটি গাড়িতে পাওয়া গেছে।

এদিকে নিখোঁজদের মধ্যে একজন বাবা এবং তার ৪ এবং ১৩ বছরের দুই সন্তান রয়েছে। তারা ঝড়ের তোড়ে ডিওনস গ্রামে হারিয়ে গেছেন। নিখোঁজদের মধ্যে একজনের বেলজিয়ামের নাগরিকত্ব রয়েছে বলেও জানা গেছে।

অন্যদিকে সেন্ট মার্টিন ডি ভালমাস গ্রামের এক ব্যক্তি শনিবার থেকে নিখোঁজ রয়েছেন।

এ বিষয়ে দেশটির প্রধানমন্ত্রী গ্যাব্রিয়েল অটল এক্স-এ পোস্ট করে বলেছেন, আমাদের কাছে বর্তমানে দুই শিশুসহ অন্তত ৭ জন নিখোঁজ থাকার তথ্য রয়েছে। তাদের উদ্ধারে অঞ্চলটিতে ৩ শতাধিক ফায়ার সার্ভিসকর্মী মোতায়েন করা হয়েছে। 

এসএ/সিলেট