সিলেট থেকে চট্টগ্রামগামী চলন্ত ট্রেনে তরুণী ধর্ষণ: গ্রেপ্তার ৪

post-title

প্রতীকী ছবি

সিলেট থেকে চট্টগ্রামগামী চলন্ত ট্রেন উদয়ন এক্সপ্রেসে এক তরুণীকে (১৯) ধর্ষণের অভিযোগে আবদুর রব ওরফে রাসেল নামের আরও একজনকে গ্রেপ্তার করেছে চট্টগ্রাম রেলওয়ে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) ভোরে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ থেকে আবদুর রবকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ নিয়ে এই ঘটনায় মোট চারজনকে গ্রেপ্তার করা হলো। গ্রেপ্তার হওয়া চারজনই ট্রেনে খাবার সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান এস এ করপোরেশনের কর্মী।

আবদুর রবকে গ্রেপ্তারের তথ্য গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রাম রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম শহীদুল ইসলাম। তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, চলন্ত ট্রেনের খাবার বগিতে তরুণী ধর্ষণের ঘটনায় আবদুর রবকে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের কুতুবপুর থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। ঘটনার পর আবদুর রব পালিয়ে তাঁর এক আত্মীয়ের বাসায় আত্মগোপন করে ছিলেন।

বুধবার (২৬ জুন) ভোর সাড়ে চারটার দিকে ঘটনাটি ঘটে বলে অভিযোগ। সে সময় ট্রেনটি লাকসাম এলাকা পার হচ্ছিল। ভোরে এই ঘটনা ঘটলেও বিষয়টি জানাজানি হয় সন্ধ্যার পর।

উদয়ন এক্সপ্রেস সিলেট থেকে গত মঙ্গলবার রাত ১০টায় চট্টগ্রামের উদ্দেশে ছাড়ে। চট্টগ্রাম পৌঁছায় বুধবার সকাল আটটায়।

এ ঘটনায় আগে গ্রেপ্তার হওয়া তিনজন হলেন মো. জামাল, মো. শরীফ ও মো. রাশেদ। তাঁদেরও গ্রেপ্তার করে রেলওয়ে পুলিশ। এ ছাড়া এই ঘটনায় ট্রেনটির পরিচালক (গার্ড) আবদুর রহিমকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে রেলওয়ে।


চট্টগ্রাম-সিলেট রুটে চলাচলকারী উদয়ন ও পাহাড়িকা এক্সপ্রেসে খাবার সরবরাহকারী এস এ করপোরেশনের কার্যক্রম (ক্যাটারিং সার্ভিস) স্থগিত করা হয়েছে। বুধবার রাতে রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলের প্রধান বাণিজ্যিক ব্যবস্থাপকের কার্যালয় থেকে এ-সংক্রান্ত আদেশ জারি করা হয়।

এসএ/সিলেট