রাশিয়ায় ফের সন্ত্রাসী হামলা, ১৫ পুলিশ নিহত

post-title

ছবি সংগৃহীত

মস্কোর কাছে একটি কনসার্ট হলে ইসলামিক স্টেটের দাবি করা হামলায় ১৪৫ জন নিহত হওয়ার তিন মাস পর রাশিয়ার দুই শহরে ফের একযোগে হামলার ঘটনা ঘটল। দেশটির উত্তর ককেশাসের দাগেস্তান প্রজাতন্ত্রে বন্দুকধারীর হামলায় কমপক্ষে ১৫ জন পুলিশ সদস্যের প্রাণহানি ঘটেছে। এছাড়া বেশ কয়েকজন বেসামরিক নাগরিকও নিহত হয়েছে। ওই হামলার ঘটনায় ৬ জন বন্দুকধারীসহ মোট ২২ জন নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। খবর রয়টার্স ও বিবিসি

রাশিয়ার সংবাদ সংস্থা ইন্টারফ্যাক্স জানিয়েছে, এ হামলায় কমপক্ষে ১৫ জন পুলিশ পুলিশ কর্মকর্তা নিহত হয়েছেন। এটি কয়েক বছরের মধ্যে রাশিয়ার সবচেয়ে বড় ধরনের সন্ত্রাসী হামলার একটি। রোববার সন্ধ্যায় দাগেস্তানের ডারবেন্ট ও মাখাচকালা শহরে ইহুদিদের উপাসনালয় সিনাগগ, দুটি গির্জায় ও পুলিশের একটি তল্লাশিচৌকিতে বন্দুকধারীরা এ হামলা চালায়।

দাগেস্তান অঞ্চলের গভর্নর সের্গেই মেলিকভ সোমবার ভোরে টেলিগ্রাম মেসেজিং অ্যাপে প্রকাশিত একটি ভিডিওতে বলেন, এটি দাগেস্তান ও পুরো দেশের জন্য একটি ট্র্যাজেডির দিন। তিনি বলেন, ১৫ জনেরও বেশি পুলিশ কর্মকর্তা ‌সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছেন। তবে কতজন পুলিশ নিহত এবং কতজন আহত হয়েছে তা তিনি উল্লেখ করেননি।

মেলিকভ বলেন, ‘আমরা বুঝতে পেরেছি, সন্ত্রাসী হামলার সংগঠনের পেছনে কারা রয়েছে এবং তাদের উদ্দেশ্য কী।

রুশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রের বরাতে রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, নিহতদের মধ্যে একজন অর্থোডক্স ধর্মপ্রচারক রয়েছেন। আর ছয় হামলাকারীকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। হামলায় জড়িত অন্যদের খোঁজে অভিযান চালাচ্ছে স্থানীয় পুলিশ।

এ হামলায় কারা জড়িত তা এখনও চিহ্নিত করা যায়নি। দাগেস্তানে আগেও কয়েকবার হামলা চালিয়েছে সন্ত্রাসী গোষ্ঠী।

সামাজিক যোগাযাগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ঘটনাস্থলের একটি ভিডিওতে দেখা যায়, মাখাচকালা শহরে পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ছে কালো পোশাক পরা কয়েকজন। পরে সেখানে গাড়ি নিয়ে পৌঁছান স্থানীয় জরুরি সেবা সংস্থার সদস্যরা। আরেকটি ভিডিওতে দেখা যায়, হামলা চালানো ভবনগুলোতে আগুন জ্বলছে।

বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, এ সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে রুশ কর্তৃপক্ষ। তবে এ হামলার জন্য তাৎক্ষণিকভাবে কোনো দায় স্বীকার করেনি কেউ।

আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে উদ্ধৃত করে রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, হামলায় জড়িত থাকার সন্দেহে দুজনকে তদন্তকারীরা আটক করেছে।


এসএ/সিলেট