জগন্নাথপুরে কয়েক হাজার মানুষ পানিবন্দী : আশ্রয় কেন্দ্রে ছুটছেন

post-title

ছবি সংগৃহীত

গত কয়েক দিনের বৃষ্টি ও ওজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার নিম্নাঞ্চল সহ বিভিন্ন এলাকার শত শত পরিবার বন্যাকবলিত হয়ে পড়েছেন।

ইতিমধ্যে অনেকের বাড়ী ঘরে পানি ঢুকে যাওয়ায় বিভিন্ন আশ্রয় কেন্দ্রে আশ্রয় নিয়েছেন।

গরুবাছুর নিয়ে অনেকে বিপাকে পড়েছেন। ইতিমধ্যে উপজেলার প্রায় সবগুলো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে আশ্রয় কেন্দ্র হিসাবে ঘোষনা করা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আলবশিরুল ইসলাম জানিয়েছেন, উপজেলার স্কুল কলেজ মাদরাসাগুলোকে আশ্রয় কেন্দ্র হিসাবে ঘোষনা করা হয়েছে। ইতিমধ্যে উপজেলায় ১৪৩টি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৮ জুন) জগন্নাথপুর উপজেলা সদরের স্বরুপ চন্দ্র সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, সরকারী গার্লস হাই স্কুল,সরকারী ডিগ্রী কলেজ,আব্দুস সামাদ আজাদ অডিট রিয়াম,উত্তর জগন্নাথপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় সহ বেশ কয়েকটি আশ্রয় কেন্দ্রে বন্যাকবলিত শতশত পরিবার আশ্রয় নিয়েছেন। এ সমস্ত আশ্রয় কেন্দ্রে খাবার ও বিশুদ্ধ পানির অভাব রয়েছে। অনেকে গরু বাচুর নিয়ে বিপাকে পড়েছেন। 

জগন্নাথপুর পৌরসভা সহ উপজেলার সবকটি ইউনিয়নের শতাধিক গ্রামের কয়েক হাজার মানুষ  বন্যাকবলিত হয়ে পড়েছেন। বাড়ী-ঘরসহ তলিয়ে গেছে রাস্তাঘাট ব্রিজ। মানুষজন পড়েছেন দূর্ভোগে। গরু-বাছুর নিয়ে অনেকে পড়েছেন বিপাকে। কেউ কেউ রাখার জায়গা ও গোখাদ্যের অভাবে কমমূল্যে বিক্রি করে দিচ্ছেন। অনেকেই ২০২২ এর প্রলয়কারী বন্যার কথা ভেবে আতঁকে উঠেন।


এসএ/সিলেট