বিয়ানীবাজারে কিশোরীকে কুপিয়ে হত্যা: যুবকের যাবজ্জীবন

post-title

প্রতীকী ছবি

সিলেটের বিয়ানীবাজারে কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় এক কিশোরীকে হত্যার দায়ে এক যুবককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রদান করেছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (৬ জুন) দুপুরে এ রায় প্রদান করেন সিলেট ৩য় আদালতের অতিরিক্ত দায়রা জজ ছৈয়দ মুহাম্মদ ফখরুল আবেদীন।

দণ্ডপ্রাপ্ত নাজিম উদ্দিনের (২৭) বাড়ি মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার নিজ-বাহাদুরপুর গ্রামে। তিনি খুন হওয়া কিশোরীর বাড়িতে দিনমজুর হিসাবে কাজ করতেন। রায়ে আমৃত্যু যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়েছে।

পুলিশ ও আদালত সূত্র জানায়,  সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার শেওলা ইউনিয়নের বালিঙ্গা গ্রামের নাজমিন আক্তারদের (১৯) বাড়িতে ২০২১ সালে দিনমজুরের কাজ নেয় নাজিম উদ্দিন। একপর্যায়ে নাজমিনের উপর কুনজর পড়ে তার। প্রায়ই তাকে আকারে-ইঙ্গিতে কুপ্রস্তাব দিতো নাজিম। বিষয়টি ওই কিশোরী তার মা-বাবাকে জানালে তারা নাজিমকে শাসান।

এতে ক্ষুব্ধ হয়ে উঠে সে। পরে ওই বছরের ১৬ মার্চ দুপুরে নাজমিনকে ঘরে একা পেয়ে দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে নাজিম। ঘটনার পর সে পালিয়ে গেলেও থানাপুলিশ অভিযান চালিয়ে রাতেই গ্রেফতার করে। গ্রেফতারের পর নাজিম আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দেয়।  বিচারের নির্দিষ্ট প্রক্রিয়া শেষে বুধবার তার বিরুদ্ধে এ রায় ঘোষণা করেন আদালত। 

এসএ/সিলেট