সুরমা-কুশিয়ারার পানি বিপৎসীমার ওপরে : নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

post-title

ছবি সংগৃহীত

ভারত থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে সিলেটের ৭ উপজেলা প্লাবিত হয়েছে। এখন নতুন করে প্লাবিত হচ্ছে সিটি করপোরেশন। বিশেষ করে নিম্নাঞ্চলগুলো দ্রুত প্লাবিত হচ্ছে। গত কয়েকদিন আগে সুরমা নদীর কানাইঘাট পয়েন্টে বিপৎসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হলেও নতুন করে বেড়েছে সিলেট পয়েন্টের পানি। এরই মধ্যে বিপৎসীমার ৭ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। এতে করে নগরীতে বন্যার শঙ্কা তৈরি হয়েছে।

এ তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) সিলেটের নির্বাহী প্রকৌশলী দীপক রঞ্জন দাশ।

শনিবার (১জুন) পানি উন্নয়ন বোর্ড সিলেট কার্যালয়ের তথ্যমতে, সকাল ৯টায় সুরমা নদীর কানাইঘাট পয়েন্টে পানি বিপৎসীমার ৮৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। সুরমা নদীর সিলেট পয়েন্টে ৭ সেন্টিমিটার এবং জকিগঞ্জ ও বিয়ানীবাজারে কুশিয়ারা দুটি পয়েন্টে পানি বিপৎসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এর মধ্যে অমলসিদ পয়েন্টে ১৯৪ সেন্টিমিটার ও শেওলা পয়েন্টে ৯ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

সিলেট আবহাওয়া অফিসের সহকারী আবহাওয়াবিদ শাহ মোহাম্মদ সজীব হোসাইন জানান, গত ২৪ ঘন্টায় সিলেটে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ছিল ৭ দশমিক ৩ মিলিমিটার।

জেলা প্রশাসনের তথ্যমতে, সিলেটের সাতটি উপজেলার মধ্যে সবচেয়ে বেশি প্লাবিত হয়েছে গোয়াইনঘাট উপজেলা। জেলায় ৫৪৭টি আশ্রয় কেন্দ্রে চালু করা হয়েছে। প্লাবিত সাতটি উপজেলার আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে আশ্রয় নিয়েছেন ৩ হাজার ৭৩৯জন।

এসএ/সিলেট