নগরীতে বানরের উপদ্রব : শিশুদের সুরক্ষার আকুতি

post-title

ফাইল ছবি

মহানগরীরতে বানরের উৎপাত সাম্প্রতিক কালে আশংকাজনক ও মারাত্মক ভাবে বেড়ে যাওয়ায় সংশ্লিষ্ট এলাকার অধিবাসীদের মাঝে চরম উৎকন্ঠা ও উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়েছে।

নগরীর কাজিটুলা, কল্বাখানি, গোয়াইটুলা, ঈদগাহ, হাজারিবাগ, হাউজিং এস্টেটসহ আশপাশের বিভিন্ন এলাকায় বানর লোকালয়ে এসে মানুষের উপর হামলে পড়ছে। এমন ভীতিকর পরিস্থিতিতে 'বন্যপ্রাণী বানরের প্রতি সদয় আচরন ও সুরক্ষা এবং বানরের বেপরোয়া ও মারমুখি অত্যাচার থেকে কিভাবে নগরবাসীকে রক্ষা করা যায়' এর উপায় নির্ধারণের লক্ষ্যে গত মঙ্গলবার কাজিজালাল উদ্দিন এলাকায় এক জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শাহী ঈদগাহ পরিচালনা কমিটির সেক্রেটারি কামাল মিয়া কামরানের বাসায় আয়োজিত জরুরি সভায় সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী লীগ নেতা ফয়জুল আলোয়ার আলাওর। সভায় বক্তব্য রাখেন, ১৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রাশেদ আহমদ, সংরক্ষিত কাউন্সিলর শাহানারা বেগম, সাংবাদিক আব্দুল মালিক জাকা, অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষা কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন, এমদাদুল হক, শাহীন আহমদ, আকবর হোসেন সেলিম, এরশাদুল হক প্রমুখ।

সভায় উপস্থিত ভুক্তভোগী এলাকাবাসী বানরের নির্মম অত্যাচারের চিত্র তুলে ধরে বলেন, স্কুলের কোমলমতি শিশু কিশোর প্রায়শই বানরের হামলার শিকার হচ্ছেন। বানরের আক্রমণের শিকার হতে পারে এমন ভয়ে তারা স্কুলে যেতে উৎসাহ হারিয়ে ফেলেছে। বানর ভীতি শিশুদের সুপ্ত মনকে আক্রান্ত করে ফেলেছে।

এছাড়াও বানর পথচারীদের কাছ থেকে খাবার ছিনিয়ে নেয়া, উঠতি গাছপালা উপড়ে ফেলা সহ নানা জ্বালাতন করে জনজীবনকে অভীষ্ট করে তুলেছে।

বক্তারা সবকিছু বাদ দিয়ে হলেও বানরের নির্মম অত্যাচার থেকে তাদের শিশু-কিশোরদের রক্ষার আকুতি জানান।

সভায় বানরের উপদ্রব মোকাবেলায় সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়, অবিলম্বে জনগুরুত্বপূর্ণ বিষয়টিতে জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্তকরন, সিটি মেয়র, জেলা প্রশসান, বনবিভাগসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোকে অবহিতকরন এবং সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করে ভোগান্তির চিত্র জনগন তথা যথাযথ কর্তৃপক্ষের নিকট তুলে ধরা।

এছাড়া সভায় নগরীতে ব্যাপক হারে কুকুরের উপদ্রব বেড়ে যাওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করে বেওয়ারিশ কুকুর নিয়ন্ত্রণে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়। বিজ্ঞপ্তি


এসএ/সিলেট