শাল্লায় প্রার্থীর পক্ষে টাকা বিতরণ, প্রিজাইডিং অফিসারসহ আটক ৪

post-title

ছবি সংগৃহীত

সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অবনী মোহন দাস (ঘোড়া প্রতীক) নামে এক প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণা ও টাকা বিতরণের অভিযোগে কান্দিগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার অপু রঞ্জন দাসসহ ৪ জনকে  আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (৭ মে) দিবাগত রাতে ৪নং শাল্লা ইউনিয়নের কান্দিগাঁও গ্রামে কেন্দ্রের সামনে টাকা বিতরণ ও প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণার চালানোর সময় ওই কর্মকর্তাকে হাতেনাতে আটক করে স্থানীয় বাসিন্দারা। পরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে তাদেরকে আটক করো থানায় নিয়ে যায়।

জানা যায়, মঙ্গলবার শাল্লার কান্দিগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার দায়িত্ব পান অপু রঞ্জন দাস। তিনি এই কেন্দ্রে আসার পর থেকে চব্বিশা গ্রামের ভোটারদের ঘোড়া প্রতীকে ভোট দেওয়ার জন্য নানা ভাবে প্রচারণা চালান।

পরে রাত বাড়ার সাথে সাথে ওই প্রিজাইডিং অফিসারসহ ৪ জন চব্বিশা কেন্দ্রের সামনে ঘোড়া প্রতীকে ভোট দেওয়ার জন্য ভোটারদের টাকা বিতরণ করেন।পরে গ্রামবাসী বিষয়টি টের পান।তৎক্ষণাৎ তাদেরকে হাতেনাতে আটক করে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে তাদের নিয়ে যায়।

শাল্লা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মিজানুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বুধবার (৮ মে) জানান, ঘোড়া প্রতীকের পক্ষে সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার টাকা বিতরণের অভিযোগ আটক করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত ৪ জন আটক আছেন।

সুনামগঞ্জ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার আলমগীর হোসেন বলেন, এই ঘটনায় চব্বিশা গ্রামে কেন্দ্রের সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। নির্বাচনে কোনও ধরনের অনিয়ম সহ্য করা হবে না। যে স্হানেই অনিয়ম হবে সেখানেই তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আমাদের লোকজন তৎপর রয়েছে।

এসএ/সিলেট