গাজায় ইসরাইলি হামলায় আরও ৪০ ফিলিস্তিনি নিহত

post-title

ছবি সংগৃহীত

ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় ইসরাইলের বিমান হামলায় অন্তত ৪০ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। এদের মধ্যে অর্ধেকেরও বেশি নিহত হয়েছেন গাজার দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর রাফায়।  সোমবার ইসরাইলি যুদ্ধবিমানগুলো রাফার তিনটি বাড়িতে আর উত্তরে গাজা সিটির দু’টি বাড়িতে বোমাবর্ষণ করে।

ফিলিস্তিনি স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, গাজা সিটির হামলায় অন্তত ছয়জন নিহত আর বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।

সোমবার রাতে গাজার মধ্যাঞ্চলে আল-নুসেইরাত শরণার্থী শিবিরে ইসরাইলের বিমান হামলায় তিন ফিলিস্তিনি নিহত হয়। নিহতদের মধ্যে একজন সাংবাদিক আছেন বলে চিকিৎসাকর্মী ও হামাস নিয়ন্ত্রিত গণমাধ্যম জানিয়েছে। 

গাজার অন্যান্য অঞ্চলে ইসরাইলের পৃথক বিমান হামলায় আরও ছয়জন নিহত হয়।  সোমবার ইসরাইলের সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, গাজার মধ্যাঞ্চলে রোববার দুই ইসরাইলি সেনা নিহত হয়েছে। হামাসের মিত্র ইসলামিক জিহাদের সশস্ত্র শাখা জানিয়েছে, সোমবার তারা ইসরাইল লক্ষ্য করে রকেট ছুড়েছে।

এর মাধ্যমে এমন ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে যে গাজায় প্রায় সাত মাস ধরে চলা ইসরাইলের অবিরাম আকাশ ও স্থল হামলা সত্ত্বেও গোষ্ঠীটির রকেট ছোড়ার সক্ষমতা এখনও বজায় আছে। 

গাজার ২৩ লাখ বাসিন্দার মধ্যে প্রায় অর্ধেক রাফায় আশ্রয় নিয়ে আছে। এই শহরটিকে এক সময় ‘নিরাপদ স্থান’ বলে ঘোষণা করেছিল ইসরাইলি বাহিনী। শহরটিতে আক্রমণ না চালাতে বিশ্ব নেতারা ইসরাইলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। 

রাফায় হামলার বিষয়ে রয়টার্সের প্রশ্নের উত্তরে ইসরাইলি সামরিক বাহিনীর (আইডিএফ) মুখপাত্র বলেছেন, গাজার দক্ষিণাঞ্চলের বেসামরিক এলাকা থেকে সন্ত্রাসীরা তৎপরতা চালাচ্ছিল, সন্ত্রাসীদের সেইসব লক্ষ্যস্থলে যুদ্ধবিমানগুলো আঘাত হেনেছে। কিন্তু তিনি আর বিস্তারিত কিছু জানাননি। 

এদিকে যুদ্ধবিরতি চুক্তি নিয়ে নতুন করে আলোচনা করতে মিশর যাওয়া হামাস নেতারা কায়রো ত্যাগ করেছেন। আল জাজিরা ও টিআরটি ওয়ার্ল্ড জানিয়েছে, আলোচনায় হামাসকে ৪০ দিনের যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। তবে হামাস আগে থেকেই স্থায়ী যুদ্ধবিরত এবং গাজা থেকে ইসরাইলি সেনার সম্পূর্ণ প্রত্যাহার দাবি করে আসছে।

অপরদিকে জিম্মিদের মুক্তির বিনিময়ে গাজায় ইসরাইল যে যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব করেছে তাকে ‘অনন্য উদার’ প্রস্তাব বলে উল্লেখ করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি ব্লিনকেন। সেই সঙ্গে দ্রুত তা মেনে নেওয়ার জন্য হামাসের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। তবে হামাস নেতারা জানিয়েছেন, তারা ওই প্রস্তাব পর্যালোচনা করে দেখছেন।

এসএ/সিলেট