বিশ্বের সবচেয়ে বড় ফুটবল স্টেডিয়াম হচ্ছে যে দেশে

post-title

ছবি সংগৃহিত

২০৩০ সালে ফিফা বিশ্বকাপ আয়োজনের স্বপ্ন দেখছে আফ্রিকার দেশ মরক্কো। দেশটিতে রয়েছে রিয়াল মাদ্রিদের সান্তিয়াগো বার্নাব্যু ও বার্সেলোনার ন্যু ক্যাম্পের মতো ঐতিহাসিক স্টেডিয়াম। এরপরও বিশ্বের সবচেয়ে বড় ফুটবল স্টেডিয়াম নির্মাণের পরিকল্পনা নিয়েছে দেশটির ফুটবল ফেডারেশন। প্রায় ৫০ কোটি ডলার ব্যয়ে নির্মিত স্টেডিয়ামটির ধারণক্ষমতা হতে ১ লাখ ১৫ হাজার দর্শক।
পশ্চিমাদের নানা বিতর্কের পর কাতার বিশ্বকে উপহার দিয়েছে স্মরণকালের সেরা বিশ্বকাপ। আয়োজনটি নির্ভুল করতে কোনো ক্রুটি করেনি ফিফাও। কাঁড়িকাঁড়ি টাকা খরচ করে বিশ্বকাপের আয়োজনকে অন্যান উচ্চতায় নিয়ে গেছে এশিয়ার দেশ কাতার।
সেই বেঞ্চমার্ক পার করা অন্যদেশগুলোর জন্য প্রায় অসম্ভব। ফুটবলের বিশ্ব আসরকে ঘিরে মেগা পরিকল্পনা নিয়েছে মরক্কো। তিন মহাদেশের ৬টি দেশে হতে পারে ২০৩০ বিশ্বকাপ। সে বছর ফুটবল বিশ্বকাপ পা দেবে শতবর্ষে। তাই উদ্বোধনী ম্যাচগুলো হবে প্রথম আসরের ভেন্যু দক্ষিণ আমেরিকায়।
আর্জেন্টিনা, উরুগুয়ে ও প্যারাগুয়ে মিলে আয়োজন করবে শুরুর দিকে কিছু ম্যাচ। তবে বিশ্বকাপের মূল অংশের আয়োজক থাকবে ইউরোপের স্পেন-পর্তুগাল ও আফ্রিকার মরক্কো।
অতীতে বড় ইভেন্ট আয়োজন করার অভিজ্ঞতা রয়েছে স্পেন-পর্তুগালের। তবে মরক্কোর জন্য এমন অভিজ্ঞতা এই প্রথম। তাই বেশ ভালো এবং বড় পরিকল্পনা নিয়ে মাঠে নামছেন মরক্কোর আয়োজকরা।
যদিও এখনও চূড়ান্ত হয়নি ২০৩০ বিশ্বকাপের সূচি ও ফাইনাল ম্যাচের ভেন্যু। তবে ফাইনাল আয়োজনের পরিকল্পনা করছে মরক্কো ফুটবল ফেডারেশন। এ জন্য স্টেডিয়াম নির্মাণ করতে যাচ্ছে তারা। যাতে করে ফাইনাল আয়োজন করতে স্পেনের ঐতিহাসিক সান্তিয়াগো বার্নাব্যু ও ন্যু ক্যাম্পকে টেক্কা দেওয়া যায়।
স্পেনের দুটি প্রতিষ্ঠান ক্রুজ ও অর্তিজের সঙ্গে স্টেডিয়ামটির ডিজাইন ও নির্মাণের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বিখ্যাত ব্রিটিশ আর্কিটেকচারাল ফার্ম পপুলাস। বেন্সলিমান প্রদেশের এল মানসুরিয়া শহরে প্রায় ১০০ হেক্টর জমিতে পূর্ণাঙ্গ ফুটবল কমপ্লেক্স করার ইচ্ছে মরক্কোর।
গ্র্যান্ড স্তাদে দি কাসাব্লাঙ্কা নামের স্টেডিয়ামটি নির্মাণ করা হবে দেশটির ঐতিহ্য মেনে। পূরণ করা হবে আলাদা অ্যাথলেটিকস ট্র্যাক, ইনডোর সুইমিংপুল, শপিং সেন্টার ও পাঁচ তারকা হোটেলসহ ফিফার সব শর্ত।
বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ধারণক্ষমতার স্টেডিয়াম হচ্ছে উত্তর কোরিয়ার পিয়ং ইয়ংয়ের রুনগ্রাদো। মরক্কোর পরিকল্পনা সফল হলে ২০৩০ বিশ্বকাপের ফাইনাল হবে বিশ্বের সবচেয়ে বড় স্টেডিয়ামে। মুসলিম দেশটিতে রচিত হবে নতুন এক ইতিহাস।

SI/04/050424