কানাইঘাটে বন্যা কবলিত এলাকায় ত্রাণ বিতরণ করলেন নাসির উদ্দিন খান

post-title

ছবি সংগৃহীত


সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার বন্যা কবলিত ৫নং বড়চতুল ইউনিয়ন ও ৩নং দিঘীরপাড় ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেছেন সিলেট জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নাসির উদ্দিন খান।

বৃহস্পতিবার (২০ জুন) দুপুরে তিনি কানাইঘাট উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মস্তাক আহমদ পলাশকে সাথে নিয়ে প্রথমে বড়চতুল ইউনিয়নের বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শনের পাশাপাশি ইউনিয়ন পরিষদের পানিবন্দী লোকজনদের মধ্যে সরকারি বরাদ্দকৃত ত্রানের চাল বিতরণ করেন।

পরে এডভোকেট নাসির উদ্দিন খান দিঘীরপাড় ইউনিয়নের বন্যা কবলিত বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করে দর্পনগর করচটি এলাকায় পানিবন্দী লোকজনদের মাঝে জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে শুকনো খাবার সামগ্রী বিতরণ করেন।

বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শন ও ত্রান বিতরণকালে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এডভোকেট নাসির উদ্দিন খান বলেন, প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারনে সিলেটের মানুষ বার বার বন্যা পরিস্থিতির সম্মুখীন হন। এবারের বন্যায় কানাইঘাট উপজেলা সহ জেলার অন্যান্য উপজেলার মানুষ আক্রান্ত হওয়ার পাশাপাশি বন্যায় ব্যাপক ক্ষতিসাধন হয়েছে। সিলেটের বন্যা পরিস্থিতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সহ সরকারের উচ্চ মহল সহ বিভিন্ন দপ্তরকে অবহিত করা হয়েছে উল্লেখ করে নাসির উদ্দিন খান বলেন, ইতিমধ্যে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী মুহিবুর রহমান এমপি বন্যা পরিস্থিতি দেখার জন্য সিলেটে এসেছেন। তার কাছে সার্বিক বন্যার ক্ষয়ক্ষতির বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে।

বন্যা দুর্গত এলাকার মানুষের মধ্যে সরকারের পক্ষ থেকে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রয়েছে। সরকারের পাশাপাশি বন্যা কবলিত এলাকায় মানুষের পাশে দলমত নির্বিশেষে সবাইকে পাশে দাঁড়ানোর জন্য আহ্বান জানান নাসির উদ্দিন খান।

কানাইঘাট উপজেলা পরিষদের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান মস্তাক আহমদ পলাশ বলেন, সম্প্রতি দু’দফা বন্যায় কানাইঘাটে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন ও পৌরসভার বিস্তৃর্ণ জনপদে বন্যা পরিস্থিতি বিরাজ করছে। বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শন করে মানুষের দুঃখ, কষ্ট তিনি নিজে দেখেছেন। সুরমা ডাইক সহ পাকা, কাঁচা সড়ক এবং বাড়ি-ঘরের ব্যাপক ক্ষতিসাধিত হয়েছে, যা সরকারের বিভিন্ন দপ্তরকে তিনি ইতিমধ্যে অবহিত করেছেন। সিলেট-৫ আসনের সংসদ সদস্য মাওলানা হুছামুদ্দীন চৌধুরীর নির্দেশে কানাইঘাট-শাহবাগ সড়কের রামপুর ভাঙনের কাজ শুরু হয়েছে। পানি কমার সাথে সাথে ভাঙন কবলিত সুরমা ডাইকগুলো মেরামত করা হবে বলে জানান তিনি।

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সিলেট জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মতিউর রহমান মতি, জেলা পরিষদ সদস্য মাওলানা মোসাদ্দেক, দিঘীরপাড় ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মুমিন চৌধুরী, বড়চতুল ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মালিক চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাজমুল ইসলাম হারুন, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল হেকিম শামীম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ইকবাল আহমদ প্রমুখ।

এসএ/সিলেট