সাংবাদিক হতে গেলে কমপক্ষে গ্র্যাজুয়েট হতে হবে : প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান

post-title

ছবি সংগৃহীত

বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের আপীল বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান মো. নিজামুল হক নাসিম বলেছেন, সাংবাদিক হতে গেলে কমপক্ষে গ্র্যাজুয়েট হতে হবে, ৫ বছরের অভিজ্ঞদেরও গ্রহণ করা হবে। তিনি বলেন, সাংবাদিকদের নিজেদের প্রয়োজনে প্রেস কাউন্সিলের মাধ্যমে তালিকাভুক্ত হতে হবে।

শনিবার (২৫ মে) সিলেটে বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড এন্ড সার্ভিসেস ট্রাস্ট আয়োজিত 'সংবেদনশীল সংবাদ প্রচার: সাংবাদিকদের ভূমিকা' শীর্ষক কর্মশালায় সম্মানিত অতিথির বক্তব্যে তিনি এই তথ্য জানান।

বিচারপতি মো. নিজামুল হক নাসিম সাংবাদিক তালিকাভুক্ত হওয়ার যোগ্যতা প্রসঙ্গে বলেন, দেশের গণমাধ্যমের মালিকদের অনেকেই এই বিষয়টিতে উৎসাহী নয়। এর পিছনে কারণ রয়েছে। তালিকাভুক্তি ফরমে বেতন ভাতাসহ প্রতিষ্ঠান থেকে প্রাপ্ত সুবিধাদির বিষয়টি উল্লেখ রয়েছে। তিনি যে কোন সময় প্রেস কাউন্সিলের তালিকাভুক্তির সুযোগটি বন্ধ হয়ে যেতে পারে বলেও জানান। সারাদেশে কর্মরত সাংবাদিকদের ডাটাবেজ তৈরিতে সাংবাদিক-সম্পাদকসহ সংশ্লিষ্ট সবার সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, সাংবাদিকদের ডাটাবেজ কার্যক্রম বেশ আগ থেকে শুরু হলেও এখন পর্যন্ত ৩৫টি জেলার তথ্য পাওয়া গেছে। যার সংখ্যা হবে তিন হাজার ২শ'র মতো। এর মধ্যে মাত্র ৮শ' ফরম তালিকাভুক্ত হওয়ার উপযুক্ত। বাকীগুলো অসম্পূর্ণ। তিনি ডাটাবেজ তৈরীতে ঢাকায় একটি প্রতিষ্ঠিত গণমাধ্যম ছাড়া কোন প্রতিষ্ঠান সাড়া দেয়নি বলে জানান।

সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অশোক পুরকায়স্থের সভাপতিত্বে নগরীর আম্বরখানাস্থ একটি হোটেলে আয়োজিত কর্মশালায় বিশেষ অতিথি ছিলেন- সিলেট প্রেসক্লাব সভাপতি ও সময় টেলিভিশনের সিলেট ব্যুরো প্রধান ইকরামুল কবির। সংবেদনশীল সংবাদ প্রচারে সাংবাদিকদের ভূমিকা বিষয়ে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক ড. গীতি আরা নাসরীন।

বক্তব্য রাখেন-ব্লাস্ট সিলেট ইউনিটের প্রাক্তন সমন্বয়কারী এডভোকেট ইরফানুজ্জামান চৌধুরী, বাংলাদেশ মহিলা আইনজীবী সমিতির বিভাগীয় সভাপতি ও ব্লাস্টের প্যানেল আইনজীবী সৈয়দা শিরিন আক্তার।

কর্মশালার উদ্দেশ্য প্রেক্ষাপট তুলে ধরেন ব্লাস্ট এর পরিচালক (এডভোকেসী ও কমিউনিকেশন) মাহবুবা আক্তার। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ব্লাস্ট সিলেট ইউনিটের সমন্বয়কারী (ভারপ্রাপ্ত) এডভোকেট সত্যজিৎ কুমার দাস। স্লাইড শো উপস্থাপন করেন ব্লাস্ট এর ফারজানা ফাতেমা।

কর্মশালায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সিলেট প্রেসক্লাব সভাপতি ইকরামুল কবির বলেন, সিলেট প্রেসক্লাবের সাংবাদিকরা তাদের পেশাগত মর্যাদা অক্ষুন্ন রেখে কর্মক্ষেত্রে দায়িত্ব পালন করছে। তিনি বলেন, যেখানে কোন অপসাংবাদিকতার সুযোগ নেই। সংবাদ প্রকাশে শব্দ চয়নে সিলেট প্রেসক্লাবের সাংবাদিকরা সংবেদনশীল বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

এসএ/সিলেট