নারী ক্রিকেট

ভারতের কাছে হোয়াইটওয়াশ বাংলাদেশ

post-title

ছবি সংগৃহীত

বাংলাদেশের বিপক্ষে আগেই সিরিজ হাতছাড়া করেছিল বাংলাদেশ। চতুর্থ ম্যাচেও হারের পর উঁকি দিচ্ছিল হোয়াইটওয়াশ। শেষ পর্যন্ত পঞ্চম ও শেষ ম্যাচটিও হারে নারী ক্রিকেট দল।

এতে পাঁচ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের পাঁচটিতেই হেরে ঘরের মাটিতে হোয়াইটওয়াশের স্বাদ পেল নিগার সুলতানার দল। আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে হারিয়ে ১৫৬ রানের সংগ্রহ পায় ভারত। সেই লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৩৫ রানে টাইগ্রেসরা। তাতে ২১ রানে জয়ে বাংলাদেশকে হোয়াইটওয়াশ করে সফরকারীরা।

টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালো করলেও ইনিংস বড় করতে পারেননি ওপেনার শেফালি ভার্মা। ১৪ বলে ১৪ রান করে আউট হন তিনি। এরপর দায়ালান হেমালাথাকে সঙ্গে নিয়ে রান তুলতে থাকেন স্মৃতি মান্ধানা। ২৫ বলে ৩৩ রান করে স্মৃতি মান্ধানা আউট হলে, হেমালাথাকে সঙ্গ দেন হারমানপ্রীত কৌর। ২৪ বলে ৩০ রানের ইনিংস খেলেন এই ভারতীয় অধিনায়ক। এরপর ২৮ বলে ৩৭ রান করে ফেরেন হেমালাথাও। শেষ দিকে ৩ বলে ১ রান করে সাজেভান সাজানা আউট হলেও, রিচা ঘোষের ১৭ বলে ২৮ রানের ইনিংসে ভর করে ১৫৬ রানের বড় পুঁজি পায় ভারত।

বাংলাদেশের হয়ে রাবেয়া খান এবং নাহিদা আক্তার দুটি করে উইকেট নেন। এ ছাড়াও এক উইকেট শিকার করেন সুলতানা খাতুন।

ভারতের দেওয়া ১৫৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকে ধুঁকতে থাকে টাইগ্রেস ব্যাটাররা। দলীয় ৫২ রানে মধ্যে টপ অর্ডারের ৫ উইকেট হারিয়ে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে বাংলাদেশ। সেখান থেকে শরিফা খাতুনকে সঙ্গে নিয়ে বিপর্যয় সামাল দেওয়ার চেষ্টা করেন রিতু মনি। ৫৭ রানের জুটি গড়েন এই দুই ব্যাটার। তবে দলীয় ১০৯ রানে ৩৩ বলে ৩৭ রান করে আউট হন রিতু। আউট হবার আগে ৩৭ রান করেন তিনি।

রিতুর বিদায়ের পর ক্রিজে আসা রাবেয়া খাতুনকে সঙ্গে নিয়ে লড়াই চালিয়ে যান শরিফা। তবে তা শুধু হারের ব্যবধান কমিয়েছে বাংলাদেশের। শেষ পর্যন্ত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৩৫ রান সংগ্রহ করতে সক্ষম হয় বাংলাদেশ। ২১ বলে ২৮ রানে অপরাজিত থাকেন শরিফা। ভারতের পক্ষে রাধা যাদব নেন ৩টি উইকেট।


এসএ/সিলেট